মেনু নির্বাচন করুন
খবর

রাউজানে গায়ে হলুদে বাল্য বিয়ে বন্ধ করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব মোঃ শামীম হোসেন রেজা

গত বৃহস্পতিবার রাত বারটার সময় ১৬ বছর বয়সী রুবা আকতারের মেহেদী অনুষ্ঠানের আয়োজন চলার সময় বিয়ে বন্ধ করার উদ্যোগ নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শামীম হোসেন রেজা। নিমিষেই বন্ধ হয়ে যায় বিয়ের আয়োজন। বাল্য বিয়ের অভিশাপ থেকে রক্ষা পায় আরেক কিশোরী। রাউজান উপজেলার চিকদাইর ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের উত্তর পাঠান পাড়ায় এই ঘটনা ঘটে। রাউজান ইউএনও কার্যালয়ের পেশকার সাধন চাকমা জানান, পরিবারের সিদ্ধান্ত মতে ১৭ নভেম্বও শুক্রবার উপজেলার চিকদাইর ইউনিয়নের উত্তর পাঠান পাড়া গ্রামের মৃত নজু মিয়া ও লায়লা বেগমের কন্যা সেই ডাবুয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণীর ছাত্রী রুবা আক্তারের সাথে পাঁচলাইশ থানাধীন সৈয়দ নগরের আব্দুর সাত্তারের পুত্র মো. এরশাদের বিবাহের আয়োজন সম্পন্ন করার কথা। এরই ধারাবাহিকতায় গতরাত বৃহস্পতিবার ছিল রুবা আক্তারের গায়ে হলুদেও দিন ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তি ইউএনও স্থানীয় চেয়ারম্যানের সহযোগীতায় রাত ১১ টা দিকে ঘটনা স্থলে উপস্থিত হয়ে এই বাল্য বিবাহ বন্ধ করেন। এবং মেয়েটির ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার পূর্বে বিয়ে না দেওয়া মর্মে তার অভিভাবকদের কাছ থেকে মুচলেখা নেওয়া হয়।
এই সম্পর্কে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট শামীম হোসেন রেজা বলেন, এইসব বাল্য বিবাহ আয়োজনে স্থানীয় ইউপি সদস্যরা অনেকাংশে দায়ী। তারা বাল্যবিবাহ রোধ না দাওয়াত খেতে যায়। কোনভাবে বাল্য বিবাহ হতে দেওয়া যাবেনা। প্রতিরোধের জন্য যা করার প্রয়োজন উপজেলা প্রশাসন তা করবে। এর সাথে যারাই মদদ দিবে তাদেরকে উপযুক্ত শাস্তির আওতায় আনা হবে। একই সাথে কোন মেয়ে যদি আর্থিক কারণে পড়ালেখার সমস্যা হয় উপজেলা প্রশাসন তার দায়িত্ব নিবে।
উল্লেখ্য, গত ৯ নভেম্বর উম্মে হাবিবা মায়া নামের গহিরা দলই নগর উচ্চ বিদ্যালয়ে দশম শ্রেণীর বিজ্ঞান বিভাগের এক ছাত্রী নিজের বাল্য বিবাহ রুখতে নিজেই লিখিত আবেদন পত্র নিয়ে হাজির হয়ে হন রাউজান উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে। এরপূর্বে গত ৩১ অক্টোবর প্রিয়া আক্তার নামে উপজেলার পূর্বগুজরা উচ্চ বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেণীর এক ছাত্রী নিজেকে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা করতে বিবাহের আসর থেকে মাকে নিয়ে পালিয়ে আশ্রয় নেয় ইউএনও’র বাসভবনে। উভয়ের ক্ষেত্রে ইউএনও শামীম হোসেন রেজা বাল্য বিবাহ রোধ করে যতাযত প্রদক্ষেপ গ্রহণ করেছিলেন।

ছবি


ফাইল


প্রকাশনের তারিখ

২০১৮-০১-০৩

আর্কাইভ তারিখ

২০১৮-০৬-২৭


Share with :

Facebook Twitter