মেনু নির্বাচন করুন

লেলেঙ্গারা পাবলিক জুনিয়র স্কুল

  • সংক্ষিপ্ত বর্ণনা
  • প্রতিষ্ঠাকাল
  • ইতিহাস
  • প্রধান শিক্ষক/ অধ্যক্ষ
  • অন্যান্য শিক্ষকদের তালিকা
  • ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা (শ্রেণীভিত্তিক)
  • পাশের হার
  • বর্তমান পরিচালনা কমিটির তথ্য
  • বিগত ৫ বছরের সমাপনী/পাবলিক পরীক্ষার ফলাফল
  • শিক্ষাবৃত্ত তথ্যসমুহ
  • অর্জন
  • ভবিষৎ পরিকল্পনা
  • ফটোগ্যালারী
  • যোগাযোগ
  • মেধাবী ছাত্রবৃন্দ

লেলাংগারা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়টি ২০০৪ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে এই পর্যন্তবিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রেখে এই পর্যন্ত সুন্দর ভাবে চলে আসছে। বিশেষ করে একঝাঁক তরুনশিক্ষক যুগোপযোগী শিক্ষা প্রদানের জন্য নিরলস চেষ্টা করে যাচ্ছে এবং এই স্কুলের বিভিন্ন সাময়িক ও পাবলিক পরীক্ষায় অংশ গ্রহন করে ভাল ফলাফলের গৌরব অর্জন করে।   

২০০৪

লেলাংগারা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয় স্থাপনের ইতিহাসঃচট্টগ্রাম জেলার রাউজান থানার অন্তর্গতলেলাংগারা গ্রামটি একটি  ঐতিহ্যবাহী জনপদ। কিন্তু এ এলাকার সাথে উপজেলা সদর ও অন্যান্য অঞ্চলের যোগাযোগ ব্যবস্থা অত্যন্ত অনুন্নত। এলাকাবাসীর আর্থ-সামাজিক অবস্থাও ততটা উন্নত নয়। সর্বোপরি একটা হাই স্কুলের অভাব এ গ্রামকে  শিক্ষাদীক্ষায় ক্রমাগত পিছিয়ে দিতে থাকে। অনুন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, প্রতিকুল পরিবেশ, আর্থিক অসচ্ছলতা ইত্যাদি কারনে গ্রামের ছেলে-মেয়েরা বিশেষ করে  মেয়েরা অন্য এলাকায় গিয়ে শিক্ষা গ্রহণে ছিল অসমর্থ। ফলে অকালে শিক্ষাজীবন থেকে ঝরে পড়ে গ্রামের ছেলে-মেয়েরা চাকুরী, ব্যবসা এমনকি বিবাহের ক্ষেত্রেও ক্রমাগত পিছিয়ে যেতে থাকে যা ছিল অত্যন্ত উদ্বেগজনক। অথচ ভৌগলিক অবস্থান, গ্রামের  জনসংখ্যা, বেশ কিছু গ্রামবাসীর আর্থিক সচ্ছলতা ও শিক্ষার প্রতি আগ্রহ ইত্যাদি মিলিয়ে গ্রামে একটি হাইস্কুল প্রতিষ্ঠার  সকল সম্ভাবনাই ছিল অনুকুলে। এ প্রেক্ষাপটে, লেলাংগারা’র কৃতি সন্তান, সরকারের উপসচিব জনাব মোঃ নাজিম উদ্দিন চৌধুরী’র  উদ্যোগে, গ্রামের মুরম্নববীদের আগ্রহ ও পরামর্শে, গ্রামবাসীর সার্বিক সহযোগিতা ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় ২০০৪ সালের শেষভাগে ’লেলাংগারা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ের গোড়াপত্তন হয়। প্রতিষ্ঠার পর থেকেই একটি সুদক্ষ শিক্ষক টিম একে একটি আধুনিক, উন্নত ও মানসম্মত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে গড়ে তুলতে নিরলস কাজ করে যাচ্ছে।  ছাত্রছাত্রীও প্রচুর পাওয়া যাচ্ছে। গ্রামের শান্ত,  মনোরম ও কোলাহলমুক্ত পরিবেশে অবস্থিত স্কুল ক্যাম্পাস অত্যন্ত চমৎকার। স্কুলটির বর্তমানে ৮ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদানের অনুমতি রয়েছে। ২০১০ থেকে পার্শববর্তী স্কzুলর মাধ্যমে এস এস সি পরীক্ষায় প্রতিবছর অংশগ্রহণ করে এ স্কুলের ছাত্রছাত্রীরা আশাব্যঞ্জক ফলাফল করছে। ১০ম শ্রেণী পর্যন্ত পাঠদানের অনুমতিসহ একাডেমিক স্বীকৃতি ও এমপিও ভুক্তির জন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আবেদন করাসহ বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সর্বাত্নক প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল
জনাব নাছির উদ্দিন 0 nasiruddin567@yahoo.com

ছবি নাম মোবাইল ইমেইল

মোট শিক্ষার্থী : ১৯৫ জন।

 

শ্রেণী ভিত্তিক  শিক্ষার্থী :  ৬ষ্ঠ- ৩৫ জন, ৭ম- ৪৫ জন, ৮ম- ৪০ জন, ৯ম- ৪০ জন, ১০ম- ৩৫জন।

৮৫%

সভাপতি : আলহাজ্ব মোঃ নাজিম উদ্দিন চৌধুরী, উপ-সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রনালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার। 

 

 

পরিচালনা কমিটি :

ক্রঃনং

নাম

পিতা

পদবী

শিক্ষাগত যোগ্যতা

পেশা

1. 

আলহাজ্ব নাজিম উদ্দীন চৌধুরী

মৃত আহমদ শরীফ চৌধুরী

সভাপতি

স্নাতকোত্তর

উপ-সচিব

2.              

আলহাজ্ব আমানত উল্লাহ চৌধুরী

মৃত আহমদ শরীফ চৌধুরী

সহ- সভাপতি

স্নাতকোত্তর

ব্যাংকার

3.              

নাসির উদ্দীন (প্রধান শিক্ষক)

মৃত মুন্সি মিয়া

সদস্য সচিব

বি.এ

শিক্ষাকতা

4. 

জিয়াউদ্দীন হায়দার চৌধুরী

মৃত আহমদ শরীফ চৌধুরী

শিক্ষানুরাগী

এইচ,এস,সি

চাকুরী

5.              

ফজলুল কাদের চৌধুরী

মৃত আহমদ শরীফ চৌধুরী

শিক্ষক প্রতিনিধি

স্নাতক

চাকুরী

6.              

মোঃ এ,কে,এম মনজুরুল ইসলাম চৌধুরী

মৃত আহমদ কবির চৌধুরী

শিক্ষানুরাগী

এইচ,এস,সি

চাকুরী

7.              

মোঃ নাসির উদ্দীন

মৃত আবুল খায়ের

শিক্ষক প্রতিনিধি

এইচ,এস,সি

ব্যবসা

8.              

মোঃ আবদুল হাই

মৃত সেকান্দর বাদশা

দাতা সদস্য

অষ্টম

কৃষি

9.              

আবু জাফর চৌধুরী

নুরুল আবছার

অভিভাবক সদস্য

অষ্টম

ব্যবসা

10.           

মহসীন আমিন চৌধুরী

মৃত আহমদ ছগীর চৌধুরী

অভিভাবক সস্য

স্নাতক

ব্যাংকার

11.           

নাসির উদ্দীন

মৃত আবদুল খালেক

দাতা সদস্য

এইচ,এস,সি

ব্যবসা

জে,এস,সিঃ ২০১০- ৬৭%, ২০১১- ৭০%, ২০১২- ৭৫%।

বেসরকারী বৃত্তি লাভ- (ক) হালিম লিয়াকত স্মৃতি বৃত্তি, (খ) ভূবন কিরণ স্মৃতি বৃত্তি।

এই বিদ্যালয়টি প্রতিষ্ঠা লগ্ন থেকে শিক্ষা খেলাধুলা ও অন্যান্য ক্ষেত্রে রাউজানের একটি সুনাম অর্জনে সক্ষম হয়েছে।

ভবিষ্যতে এই বিদ্যালয়টি স্বীকৃতি ও এমপিও ভুক্ত করে রাউজানে একটি ব্যতিক্রম ধর্মী আধুনিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসেবে গড়ার পরিকল্পনা গ্রহন করা হয়েছে।

চট্টগ্রাম শহর অক্সিজেন থেকে রাঙ্গামাটি রোড হয়ে মুন্সীরঘাটা নেমে, সিএনজি যোগে সরাসরি লেলাংগারা পাবলিক উচ্চ বিদ্যালয়ে আসা যাবে।



Share with :

Facebook Twitter